কসবায় কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিল ছাত্রলীগ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক, কসবা | ২৮ এপ্রিল ২০২০ | ২:১৬ অপরাহ্ণ
অ+ অ-
করোনাভাইরাসের প্রভাবে শ্রমিক সংকটের কারণে পাকা ধান কাটতে পারছেন না অনেক কৃষক। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলায় বিপাকে পড়া এমন কৃষকের জমির ধান কেটে বাড়ি পর্যন্ত পৌঁছে দিচ্ছে উপজেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।
মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) দুপুরে কসবা উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক মানিক ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি মো. ইব্রাহিমের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা কাস্তে হাতে জমিতে নেমে উপজেলার কায়েমপুর ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামের কৃষক মিন্টু মিয়ার ৯০ শতাংশ জমির ধান কেটে দেন।
আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হকের নির্দেশে ছাত্রলীগের উপজেলা, পৌর ও ইউনিয়ন শাখার অন্তত ৬০ জন নেতাকর্মী মিলে মিন্টু মিয়ার জমির ধান কাটেন। ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে মিন্টু নিজেও ধান কাটায় অংশ নেন।
রোজা রাখা অবস্থায় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা ধান কাটার পর সেই ধান আবার মিন্টুর বাড়িতে পৌঁছে দেন।
ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক কাজী মানিক বলেন, যেসব কৃষকরা শ্রমিকের অভাবে ধান কাটতে পারবেন না, ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা তাদের জমির ধান কেটে বাড়িতে পৌঁছে দেবে।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল বলেন, কেন্দ্রীয় কমিটির নির্দেশনার পর দেশের এই সংকটময় মুহূর্তে কৃষকদের পাশে দাঁড়িয়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা যে দায়িত্ববোধের পরিচয় দিয়েছেন সে কারণে খুশি এলাকাবাসী ও কৃষকেরাও।
উপকারভোগী কৃষক মিন্টু মিয়া বলেন, দুই সপ্তাহ আগেই আমার জমির সব ধান পেকে শীষ নুইয়ে পড়েছে। যদি ছাত্রনেতারা আমার ধান কেটে না দিতো, তাহলে শ্রমিকের অভাবে হয়তো আমার ধান কাটতে দেরি হতো।
শ্রমিক দিয়ে এই ধানগুলো কাটতে তার কমপক্ষে ১৫ হাজার টাকা খরচ হতো জানিয়ে তিনি ধান কেটে দেয়ায় জন্য ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
ধান কাটায় অংশ নেয়া ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন, কসবা উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য সুমন রানা ও মো. টিটু, পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুম রানা, বিনাউটি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি হাসান মো. শাহরিয়ার, খাড়েরা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সুজন, বায়েক ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মো. সাদ্দাম প্রমুখ।

Facebook Comments

পড়া হয়েছে 900 বার
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
x